শিরোনাম :
বর্ষীয়ান আ.লীগ নেতা আ: মতিন সরকার এর ৩য় মৃত্যুবার্ষিকী আজ মনোহরদী উপজেলা প্রেসক্লাবের কমিটি গঠন || শাকিল সভাপতি – সাধারণ সম্পাদক আজমিরী বিদেশিদের কথায় বিএনপি আন্দোলন করে না : ড. মঈন খান নরসিংদীতে আনোয়ার গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের হালখাতা অনুষ্ঠিত  রেলওয়ের টিকিটে ডিজিটাল প্রতারণা! আয়ূবপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুস সাত্তার আর নেই রাঁতের আাধারেই ক্রীড়া সংস্থার কমিটি গঠিত।। হতাশ নরসিংদীর ক্রীড়ামোদীরা রজবেন্নেছা আমজাদ স্মৃতি পাঠাগারে শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত পবিত্র শবেবরাত আজ শিবপুরে আইডিয়েল কে.জি এন্ড হাই স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ
সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০৪:১৯ পূর্বাহ্ন

নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে এমন প্রমাণ খুঁজে পাইনি : ম্যাথিউ মিলার

স্টাফ রিপোর্টার / ৫৯ বার
আপডেট : শুক্রবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

বাংলাদেশে নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হয়নি বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। একইসঙ্গে আটককৃত হাজারো বিরোধী নেতাকর্মীর স্বচ্ছ আইনি প্রক্রিয়া নিশ্চিত করার আহ্বানও জানিয়েছে দেশটি। এছাড়া বিরোধী দলের সদস্য, গণমাধ্যম কর্মী এবং সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণের সুযোগ তৈরি করে দেওয়ার আহ্বান ও জানিয়েছে ওয়াশিংটন।
গত ৩০ জানুয়ারী মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার।
মিলারের কাছে জানতে চাওয়া হয়, জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশন বাংলাদেশে আটক রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের অবিলম্বে মুক্তির আহ্বান জানিয়েছে। গত ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে কারচুপি করার জন্য সরকার বিরোধী দল বিএনপির শীর্ষ নেতাসহ ২৫ হাজার বিরোধী সদস্যকে গ্রেফতার করেছে। নির্বাচনের আগে দেওয়া ভিসা নীতির পরিপ্রেক্ষিতে গণতন্ত্রকে ক্ষুন্ন করায় সরকারের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের পদক্ষেপ কী?
জবাবে তিনি মিলার বলেন, ‘আপনারা আমাকে আগেও বাংলাদেশের সংসদ নির্বাচন নিয়ে উদ্বেগে প্রকাশ করতে দেখেছেন। আমরা নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে এমন প্রমাণ খুঁজে পাইনি। সেই নির্বাচন সামনে রেখে বিরোধী দলের হাজার হাজার সদস্যের গ্রেফতার নিয়েও আমরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছি।’
মিলার আরও বলেন, ‘আমি দুটি জিনিস বলব। প্রথমত. গ্রেফতারকৃত সবার জন্য একটি ন্যায্য ও স্বচ্ছ আইনি প্রক্রিয়া নিশ্চিত করার জন্য আমরা বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানাই। আমরা বাংলাদেশ সরকারকে বিরোধী দলের সদস্য, গণমাধ্যম, নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিদের দেশের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া ও নাগরিক জীবনে অর্থপূর্ণভাবে অংশগ্রহণের অনুমতি দেয়ার জন্য অনুরোধ জানাই এবং বিষয়টি এগিয়ে নিতে আমরা বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে কাজ করে যাব।’
অপর এক প্রশ্নের জবাবে ম্যাথিউ মিলার বলেন, ‘আমি বাংলাদেশ ও গণতন্ত্রের প্রতি সম্মান রেখেই বলতে চাই, বাংলাদেশসহ অন্য সব দেশের জন্যই শান্তি, সমৃদ্ধি ও নিরাপত্তা নিশ্চিতে গণতন্ত্র জরুরি। এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বৈদেশিক নীতির কেন্দ্রবিন্দুতে আছে এবং আমরা গণতান্ত্রিক নীতিগুলোকে এগিয়ে নেয়ার জন্য বাংলাদেশী সরকারের সঙ্গে সম্পৃক্ততা অব্যাহত রেখেছি। এই প্রক্রিয়া বাংলাদেশীদের জন্য শান্তি ও সমৃদ্ধি নিশ্চিতের মূলমন্ত্র।

Facebook Comments Box


এ জাতীয় আরো সংবাদ